Effective home remedies to remove upper lip hair – ঠোঁটের ওপরের লোম তোলার জন্য কিছু উপকরণ যা বাড়িতে বসেই করা যায়

যদি সুতো দিয়ে ঠোঁটের ওপরের লোম তুলতে তোমার এলার্জি হয় তাহলে তুমি বাড়িতে বসেই এটি করতে পারো। কিছু উপকরণ আছে যা আমাদের বাড়িতে সব সময় উপস্থিত তোমার সেগুলো দিয়েই একটি মণ্ডপ তৈরি করতে পারো যা তোমার ঠোঁটের ওপরে প্রলেপ করে লোম তুলতে পারবে। তুমি সুন্দরভাবে একটা পার্থক্য বুঝতে পারবে যা তোমার লোম তোলার আগে এবং পরের অবস্থায় এবং একটি সুন্দর মসৃন এবং উজ্জ্বল ত্বক পাবে। নিচে কিছু উপকরণ দেওয়া হলো যা বাড়িতে বসেই করা সম্ভব।

ওপরের ঠোঁটের লোম তোমার সমস্ত সৌন্দর্য নষ্ট করে দেয় ,যখন তুমি মেকআপ করে কোনো পার্টি তে যাও। তোমার ওপরের ঠোঁটের লোম তোমাকে সব কিছু থেকে আলাদা করে দেয়। এখনই সময় তোমাকে তোমার ওপরের ঠোঁটের থেকে লোম সরিয়ে দিতে হবে এবং সেটি একটি নির্দিষ্ট টাইম ছাড়া ছাড়া। এখানে আমরা জানতে পারি যে কি ভাবে ওপরের ঠোঁটের লোম আমরা সরাই এবং খুব সহজ উপায়। এমনকি এটা পার্লারের চিকিৎসার থেকেও বেশি ভালো চিকিৎসা। এখন আমাদের এটা বলতে দাও  যে কি ভাবে এটা ওপরের লোম সরাতে কাজে লাগবে।

ওপরের ঠোঁটের লোম সরানোর জন্যে কিছু বাড়ির উপকরণ (Home remedies to remove upper lip hair)

পাতি লেবু এবং চিনির মিশ্রণ (Lemon juice and sugar)

একটা বাটি  নিয়ে তাতে ৩০ গ্রাম চিনি এবং লেবুর রস দানাশুদ্ধ চিপে নিতে হবে। কিছুটা জল দিয়ে একটা চামচ দিয়ে  তা ভালো করে নেড়ে একটা মিশ্রণ তৈরী করতে হবে। এবার সেই মিশ্রণটি ভালো করে সেই জায়গাতে লাগাতে হবে যেখান থেকে সেই লোম গুলো শুরু হচ্ছে। এবার এই প্যাকটা ১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখতে হবে। এবার ঠান্ডা জল দিয়ে সেই মিশ্রনের প্রলেপ টা ধুয়ে দিতে হবে এবং জল দিয়ে ধুয়ে দেওয়ার আগে তা ভালো করে ঘষে নিতে হবে। লেবু এবং চিনির রস ধীরে ধীরে সেই ঠোঁটের ওপরের লোম গুলোকে তুলে দেবে এবং এটি একটি প্রাকৃতিক উপকরণ।

বেসন (Gram flour)

বেসন ভারতের প্রতিটা রান্নাঘরে প্রচুর পরিমানে পাওয়া যায় যা কোনো খাবারের ওপর একটি আস্তরণ হিসাবে ব্যবহার করা হয়। গবেষণা করে জানা গেছে যে এটা যদি ত্বকের ওপর লাগানো হয় তাহলে তা ত্বক উজ্জ্বল করার পক্ষে খুবই উপযোগী যা কোনো কসমেটিকসের থেকেও ভালো। আজকাল লোম তোলার জন্যে যে ফেসিয়াল প্যাক তৈরী করা হয় শুধুমাত্র বেসন আর লেবুর মিশ্রণ দিয়ে তা খুবই সহজলভ্য। দুটির মিশ্রনের পর আমরা দেখতে পাবো যে মিশ্রণটির রংটি হলুদ রঙের। এই মিশ্রণটি তোমার মুখে লাগানো উচিত এবং তা ১৫ ধরে রাখা উচিত। এবার সেই প্যাকটা ভালো ভাবে ঘষতে হবে যেখান থেকে সেই লোমগুলো শুরু হয়েছে।

মধু এবং লেবু (Honey and lemon)

বাড়িতে মধু থাকা খুব দরকার যা দিয়ে বাড়িতে বিভিন্ন ধরণের খাবার  করা হয়। তোমাকে কোনো মুখোশ তৈরী করতে হবে না যা দিয়ে তোমার অনাবশ্যক চুল  সরাবে। একটা পাত্র নিন তাতে ৪০মিলিলিটার মধু নিন। এবার তাতে একটা অর্ধেক লেবুর রস মেশান এবং  তা চামচ দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার একটা সুতির কাপড়ের অংশে ভালো করে মাখিয়ে তা দিয়ে সেই লোমশ জায়গায় মাখিয়ে দিন,যেখানে লোম গুলো দেখা যাচ্ছে। এভাবে তোমাকে সপ্তাহে দুবার করা উচিত  এরফলে ওই জায়গায় আর লোম দেখা যাবে না।

হলুদ (Turmeric)

হলুদ তোমাকে একটা খুব সুন্দর ফল দিতে পারে যা তোমার অনাবশ্যক লোম তুলতে সাহায্য করে যা তোমার ওপরের  ঠোঁটের ওপর থাকে। একটা ছোট পাত্র নিয়ে তাতে কিছুটা হলুদ মিশিয়ে নিন। এবার তাতে জল মিশিয়ে নিন এবং এমন ভাবে মেশান যেন সেটি বেশি পাতলাও না হয় আবার বেশি মোটেও না হয় বরং সেটার অনুপাত যেন  সমান থাকে। এটা মুখের সেই জায়গায়  লাগাও যেখানে ওপরের ঠোঁটের লোম উঠেছে সেই জায়গাতে। এবার ৩০ মিনিট অপেক্ষা করো যতক্ষণ না এই  প্রলেপটা শুকাচ্ছে। এবার অল্প করে জল দিয়ে সেটাকে ধোয়া উচিত এবং আস্তে আস্তে আঙ্গুল দিয়ে ঘষে তা ধুয়ে হবে। এটা  যদি তুমি পরপর ৪ সপ্তাহ করতে পারো তাহলে আপনার ঠোঁটের ওপরের লোম খুব কমই উঠবে।

চিনি (Sugar)

মোম গলিয়ে  যখন লোম তোলা হয় তোমাদের ত্বক থেকে তখন মেয়েদের ত্বকে খুবই ব্যথা হয় এবং এটা তাদেরই হয় যারা কোনোদিন মোম গলিয়ে লোম তোলেনি। চিনি এমন একটা জিনিস যা শুধু মাত্র ব্যাথা থেকে তোমাদের মুক্তি দেবে না বরং এটা একটা প্রাকৃতিক উপকরণ যার কোনো পার্শপ্রতিক্রিয়া নেই। এই জন্যে তোমায় এক চামচ চিনি নেওয়া উচিত একটা পাত্রে এবং এটাকে মিনিটখানেক ধরে গরম করা উচিত। এবার তার মধ্যে কিছুটা লেবুর রস দেওয়া দরকার এবং সেটাকে তরল করা দরকার। এই মিশ্রণ টা এবার ওপরের ঠোঁটের ওপর লাগিয়ে নাও ঠান্ডা করে। যখন এটা ঠোঁটের ওপর বসে যাবে তখন একটা কাপড় দিয়ে তা ঢেকে দাও। এবার চিপে রাখো আর তারপর তোলা থেকে আস্তে আস্তে তোলো। এবার তুমি দেখতে পাবে যে সেই লোম গুলো ধীরে ধীরে কাপড়ের সাথে উঠে আসছে।

ময়দা (Flour)

তোমার বাড়িতে সব সময় ময়দা থাকা উচিত যা দিয়ে বাড়ির সুস্বাদু খাবার তৈরী করা যায়  শুধু মাত্র ময়দার তাল দিয়ে। তুমি এটা শুনে বিস্ময় হবে যে, এই ময়দা দিয়েও লোম তোলা যায়। এক চামচ ময়দা নাও এবং তাতে এক চিমটা হলুদ এবং দুধ মেশাও। এবার তা ভালো করে মেশাও এবং একটা পাতলা মিশ্রণ তৈরী করো। এবার তা তোমার ত্বকের ওপর একটা প্রলেপ দিয়ে দাও ,যা তোমার ত্বকে  সম্পূর্ণ ভাবে লাগানো যাবে। যখন এটা শুকিয়ে যাবে তখন আস্তে আস্তে তুলে দিতে হবে এবং দেখো তার ফল কি হয়। তুমি খুব সুন্দর একটা ত্বক পাবে যেটা তুমি খুব সহজেই পাবে এবং সেটা হবে সম্পূর্ণ লোম ছাড়া।

ডিমের সাদা অংশ (Egg whites)

তুমি কি জানো যে ডিমের সাদা অংশ রান্না এবং খাওয়া ছাড়াও অবাঞ্ছিত লোম তুলতে সাহায্য করে। এটা খুবই সহজ যে এটা প্রতিটা বাড়িতে পাওয়া যায় ,তুমি একটা খুব ভালো সাহায্য পাবে তোমার অবাঞ্চিত লোম তুলতে। তোমরা সবাই ডিমের সাদা অংশ টা ডিমের কুসুম থেকে আলাদা করে রাখো। এবার ভুট্টার গুঁড়োর সাথে কিছুটা চিনি মিশিয়ে ভালো করে চামচ দিয়ে নাড়ো। এবার ওটা তোমার ওপরের ঠোঁটের ওপর লাগিয়ে দাও। এবার তা ৩০ মিনিট ধরে তুলে দাও।

চিনি দিয়ে ক্যামোমিল চা (Chamomile tea with sugar)

তুমি তোমার গরম করা ক্যামোমিল চা চিনির সাথে মিশিয়ে ওপরের ঠোঁটে লাগাতে পারে যার দ্বারা ঠোঁটের ওপরের লোম তোলা যায়। পরিমান টা  হবে যে অর্ধেক কাপ চায়ের সাথে দুই চামচ চিনি মেশানো। এবার এটাকে গরম করবেন এবং এটা একটা জেল এ পরিণত হবে। এবার তা তোমার ওপরের ঠোঁটে লাগাও যখন এটি উষ্ণ গরম থাকবে। এবার তুমি ২০ মিনিট অপেক্ষা করবে। এবার একটা চ্যাপ্টা চামচ ব্যবহার করো যা দিয়ে এই প্রলেপ তা তোলা যাবে এবং সঙ্গে সঙ্গে অবাঞ্চিত লোম গুলোও সরানো যাবে।

আলুর রস (Juice from potato)

যে আলু আপনি রোজ খাচ্ছে সেই আলু দিয়েই আপনার ওপরের ঠোঁটের লোম সরানো যাবে। তুমি একটা আলু পাতলা করে কাটবে এবং ইটা তোমার ওপরের ঠোঁটে ঘসবে যেখানে তোমার লোম গুলো উঠেছে। এটা তোমার বিছানায় শোয়ার আগে করবে এবং দেখবে এক মাসের মধ্যে তার ফল।

loading...