Bengali tips for foot pain – পায়ে ব্যথা জন্য টিপস টিপস

এটি একটা সাধারণ ঘটনা বিশেষত যখন আপনি সারাদিনের কাজের পর ক্লান্ত হয়ে বাড়ি ফিরে  জুতো খুলে রাখেন এবং একটি সোফার উপর বসেন। সম্ভবত সেটাই সঠিক সময় যখন আপনি বুঝতে পারেন যে আপনার শরীরের অনেক জায়গায় তীব্র যন্ত্রনা করছে এবং আপনার পায়ের পাতাটি খুব খারাপ অবস্থায় আছে। মাত্র এই দুটি পা এর সাহায্যে মানুষ চলাফেরা করার কাজ সম্পন্ন করে থাকে। এমনকি আপনি যদি হাঁটাচলা না করে গাড়ি ব্যবহার করে থাকেন তাও গাড়ির এক্সিলেরেট ও  ব্রেক কষার জন্যও পায়ের ভূমিকা যথেষ্ট। তারপরে আবার আমাদের পায়ের পাতাগুলি মোজার ভিতর আবদ্ধ থাকে যা জুতোর ভিতরে ঢাকা থাকে।

পায়ের ব্যাথা বিভিন্ন কারণে হতে পারে যেমন নখের ভিতরে, হাজার কারণে, চামড়া উঠে যাওয়া। এর সবকটি ডাক্তারের পরামর্শে নিরাময় করা উচিত। আবার এমন ঘটনাও দেখা যায় যেখানে আপনার মাপের জুতোর ব্যবহার না করা বা বার্ধকতার কারণে অথবা স্থূলতার কারণে পায়ের ব্যাথা হয়। এইরকম সাধারণ পায়ের ব্যাথা নিরাময় করার জন্য খুব একটা পরিশ্রমের প্রয়োজন হয় না, কেবলমাত্র পায়ের ম্যাসেজ, নখের যত্ন নেওয়া অথবা একবালতি  গরম জলে পা ডুবিযে রেখে পায়ের বিশ্রাম দেওয়া।

পায়ের আঙুলের ব্যাথা বিভিন্ন প্রকারের হতে পারে এগুলির মধ্যে অন্যতম হলো,

  • আপনার পায়ের আঙুলের হাড়টি যদি বড়ো হয়ে যায়, সাধারণত মহিলাদের ভুল মাপের জুতো পরার জন্য হয়ে থাকে
  • এর থেকে মুক্তি পাওয়ার রাস্তা হলো সঠিক মাপের জুতো ব্যবহার করা
  • পায়ের আঙ্গুল বেঁকে যাওয়াএটি সাধারণত হয়ে থাকে যখন আপনার পায়ের আঙুলের অস্থিগ্রন্থিগুলি বেঁকে যায়, অনেকটা হাতুড়ির মতো দেখতে লাগে আঙুলের পেশিগুলো সঠিকভাবে বাড়তে না পাওয়ার জন্য আঙ্গুল বেঁকে যায় আঁটোসাঁটো জুতো পরলে সাধরণত পায়ের আঙ্গুল বেঁকে যায়
  • যখন আপনার আঙুল সঠিকভাবে বাড়তে না পারে তখন নখের মতো আঙ্গুল হয়ে যায় এটির ফলে আপনার স্নায়ুঘটিত রোগ দেখা যায় যার ফলে আপনার মধুমেহ বা আলকোহলিজম মতো রোগ হতে পারে।সঠিকমাপের জুতোর ব্যবহার উঁচু এবং আঁটোসাঁটো গোড়ালির জুতো না পরা হলো এর প্রতিকারের উপায় পায়ের ব্যায়াম এর জন্য যথেষ্ট উপকারী
  • অন্তর্বর্ধিত পায়ের নখ অর্থাৎ যখন পায়ের আঙুলের উভয়দিকের চামড়া আকারে বেড়ে যায় তখন তা খুব যন্ত্রণাদায়ক হয় সংক্রমনাক হয় এর প্রতিকারের জন্য গরম জলের বালতির ভিতরে পা ডুবিয়ে রাখুন।

Sleeveless Blouse designs

পায়ের ব্যায়াম: আপনার শরীরের সমস্ত অংশের মতো পায়ের ব্যায়ামের প্রয়োজন আছে ইন্টারনেটে কিছু ভিডিও দেখে নিন বা আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন চিরতরের জন্য ব্যাথা দূর করতে তা নিয়মিত অভ্যাস করুন

এইগুলো ছাড়াও আপনি:

  1. একজোড়া জুতোর সোল্ নিন যা যেকোনো ওষুধের দোকানে পাওয়া যায় পায়ের পাতার যন্ত্রনায় যারা ভুগছেন এটি তাদের জন্য উত্তম প্রতিকার
  2. পায়ের ব্যায়ামের পাশাপাশি গড়ালির ব্যায়ামের অভ্যাস করুন যারা সাধারণত উঁচু গোড়ালির জুতো পরতে ভালোবাসেন এটি তাদের জন্য খুব প্রয়োজনীয়
  3. যতটা সম্ভব পারবেন পাটিকে ঢেকে রাখবেন কারণ তাতে আপনার পাটি সিক্ত থাকবে এবং তা শুকিয়ে গিয়ে ফেটে যাওয়ার সম্ভবনা কম থাকে পা শুকিয়ে বা ফেটে গেলে মোয়েস্তরাইজের লাগান যাতে তা আরো ক্ষতিকারক না হয়ে ওঠে।
  4. প্রিতিদিন নতুন মজা পরুন
  5. আপনার পা নিয়মিত ধুয়ে পরিষ্কার করুন
  6. জীবাণুনাশক দিয়ে পা পরিষ্কার করুন

মনে রাখবেন আপনি যদি নিজের সঠিক যত্ন করেন তবে আপনি সঠিক ভবিষ্যৎপাবেন কারণ কথায় আছেচিকিসার থেকে সাবধানতা অনেক গুন্  ভালো

পায়ের ব্যাথার কারণ (Causes of foot pain)

পায়ের ব্যাথার কারণগুলি খুবই সাধারণ এবং তার কিছু প্রচলিত কারণগুলি হলো:

  • অস্বাভাবিক পায়ের অবস্থানযেমন সমতল পায়ের পাতা, উঁচু গোড়ালি পায়ের ব্যাথার কারণ হতে পারে
  • স্থূলতাশরীরের সমস্ত ভার পা বহন করে স্থূলতার কারণে অস্থিগ্রন্থি, পায়ের পেশী উপর অতিরিক্ত চাপ পরে
  • গর্ভাবস্থা গর্ভাবস্থায় থাকার জন্য অতিরিক্ত ওজনের কারণে অস্থিগ্রন্থিটি পায়ের পেশিতে বাড়তি টান ধরে
  • বেঠিক মাপের জুতোবেঠিক মাপের জুতোর কারণে আপনার পায়ের পাতায় সমস্যা দেখা দিতে পারে যদি আপনার জুতোটি আপনার পায়ে সঠিক মাপের না হয় তাহলে চলাফেরা করার সময় আপনার পাটিকে একটু পিছনে বার করে রাখুন জুতো থেকে এটি আপনার পায়ের পাতা পেশির উপর চাপ কমাবে
  • অতিরিক্ত পায়ের ব্যবহারঅনেক্ষন ধরে হাঁটাচলা বা দাঁড়িয়ে থাকার কারণে অথবা দুটি একসাথে করলে আপনার পায়ে যথেষ্ট চাপ পরতে পারে আপনাকে দুর্বল করে তোলে শক্ত মাটির উপরে হাঁটাচলা করলেও অনেকসময় আপনার পায়ের পাতায় অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি করে
  • কিছু শারীরিক কারণের জন্য পায়ে ব্যাথা হতে পারে এই রোগগুলির মধ্যে মধুমেহতা, বাতের ব্যাথা,  হৃৎপিণ্ডজনিত কারণ অন্যতম

কিছু সাধারণ পায়ের সমস্যা তার প্রতিকারের উপায় (Common foot problems and tips to get relief)

  • গোড়ালির ব্যাথাআপনার পায়ের যে পেশীকলাটি পায়ের পাতা থেকে আঙ্গুল পর্যন্ত বিস্তৃত সেটি উদ্দীপ্ত হয়ে যায় এই অবস্থায় এর জন্য গোড়ালির ব্যাথা পায়ের বাঁকা অংশটি যন্ত্রনা করে

নিরাময়স্বরূপ বিশ্রাম, গোড়ালি পায়ের পাতার নিয়মিত ব্যায়াম, সঠিক মাপের জুতো আরামদায়ক জুতোর সোল ব্যবহার করা প্রয়োজন

  • গোড়ালির অসামঞ্জস্য বৃদ্ধি যার মধ্যে পায়ের অস্থির গোড়ালির হাড়ের বৃদ্ধির কারণে যা বেঠিক নিয়মের হাঁটাচলা, বেঠিক মাপের জুতোর ব্যবহার, যেমন দৌড়ানোর জন্য হয়ে থাকে এর জন্য সমতল পায়ের গোড়ালি পায়ের বাঁকা অংশটি ক্ষতিগ্রস্থ হয়

নিরাময়স্বরূপ কম উঁচু গোড়ালির জুতো, আরামদায়ক জুতোর সোল, সঠিক মাপের জুতোর ব্যবহার যা পাকে আরাম দেবে

Subscribe to Blog via Email

  • পায়ের আঙুলের অস্থিগ্রন্থির যন্ত্রণার জন্য দৌড়ানো, ঝাঁপানো, বেঠিক মাপের জুতোর ব্যবহার দায়ী এর জন্য পায়ে কালসিটে দাগ পরে যায় কোনো শক্ত বস্তুর সাথে চোট লাগার কারণে এটি হয়ে থাকে

পায়ে বরফ ঘষে পাটিকে বিশ্রাম দিয়ে, নিয়মিত জুতো বদল করে আরামদায়ক জুতোর সোল ব্যবহার করে এর প্রতিকার করা সম্ভব

  • আপনার পায়ের তিন চার নম্বর আঙুলের সংযোগস্থলের পেশীকলা ফুলে গেলে তাকে মোর্তন নিউরোমা বলে যার স্বাবাভিক লখন হলো পায়ের আঙুলের অস্থিগ্রন্থির অসার হয়ে যাওয়া এটি উঁচু গোড়ালির জুতো পরার জন্য বা শক্ত জুতো পরার জন্য হয়ে থাকে যা মহিলাদের মধ্যে সবথেকে  বেশি দেখা যায় এটি প্রতিকার করার জন্য আরামদায়ক জুতোর সোল, উঁচু গোড়ালির জুতোর ব্যবহার না করা, ব্যাথার জায়গায় ইনজেকশন দেওয়ার প্রয়োজন

আপনার পায়ের পাতাটি সারাদিন খুব যন্ত্রনায় আছে এবং আপনি সেটা সম্ভবত উপলব্ধি করতে পারছেননা

আপনি একবার ভেবে দেখুন আপনি সারাদিন কি কি কাজ করেন। অফিসে বারবার উপর নিচ করা, লিফটের ব্যবহার, সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করা। বাজারে যাওয়ার জন্য বা অন্যান্য কারণে অনেকবার হাঁটাচলা করা। এগুলি নিত্য দৈনন্দিন কাজ যা আপনি অবহেলা করতে পারেননা ও এর জন্য আপনার পায়ের উপর কতটা চাপ পরে এবং অবহেলার কারণে পায়ের যন্ত্রণার সৃষ্টি হয়।

কেবলমাত্র উপরোক্ত কারণগুলি ছাড়াও অন্যান্য কারণে পায়ের যন্ত্রনা হতে পারে। অন্যান্য কারণস্বরূপ ছাল ওঠা, কড়া পরা, পায়ের নখের চামড়া বেড়ে যাওয়া, বেঠিক মাপের জুতো পরা, ছত্রাকজাতীয় সংক্রমণ, স্থূলতা ইত্যাদি। যেকারণে হোকনা কেন এটা নিশ্চিত যে পায়ের পাতার যন্ত্রনা আপনাকে যথেষ্ট ভোগাবে ও যেকনো প্রকারে তা নিরাময় করা খুব প্রয়োজন। এক বালতি হালকা উষ্ণ জলে পা ডুবিয়ে রাখলে তা খুব আরামদায়ক।

এখানে কিছু ঘরোয়া ও সহজ পদ্ধতির টোটকা ব্যক্ত করা হলো (Here is an easy home remedy solution)

  • আপনার যদি সময় ও অর্থ দুই থাকে তাহলে আপনি যেকোনো পার্লর গিয়ে অভিজ্ঞদের দ্বারা তা সম্পন্ন করতে পারেন। তাছাড়া যদি আপনি ঘরে তা করতে চান তার সহজ উপায় এখানে বলা হলো।
  • আপনার পাটি একবালতি জলে ১৫ মিনিট ডুবিয়ে রাখুন।
  • এরপর একবালতি হালকা উষ্ণ জলে পাটি ডুবিয়ে রাখুন। আপনি সঙ্গে সঙ্গে তার ফল পাবেন কারণ গরম জল আপনার পাটিকে জাদুর মতো এক  আরাম প্রদান করবে। এটিও ১৫ মিনিট মতো করুন। গরমজলে সামান্য লবন যোগ করলে তা আরো কার্যকরী হবে কারণ লবন জীবাণুনাশকের কাজ করে।
  • যদি সম্ভব হয় তাহলে সৌরোভিত তেল যেমন গাঁদা ফুল যা আপনার স্নায়ুকে ঠান্ডা অনুভূতি দেয় ও ক্লান্ত ব্যক্তিকে অসামান্য প্রশস্তি প্রদান করে।
  • এই সমস্ত প্রতিকার আপনার পায়ের বাইরের অংশটিকে আরাম প্রদান করে ও রক্ত চলাচল স্বাভাবিক করে। যখন রক্ত আপনার শিরার মধ্যে দিয়ে সঠিকভাবে চলাচল করবে তখন আপনাআপনি পায়ের যন্ত্রনা থেকে মুক্তি পাবেন।
  • এই অভ্যাস সম্পূর্ণ করার পর আপনি কোমল ক্রিম বা মেয়াশ্চরিসিং লোশন দিয়ে পায়ে ম্যাসেজ করুন। যদিও কোনো অভিজ্ঞ ব্যক্তির দ্বারা ম্যাসেজ করলে তা খুব আরামদায়ক হবে তবুও এই উপায়ে আপনি যথেষ্ট আরাম পাবেন ও যন্ত্রনা থেকে মুক্তি পাবেন।
  • যদি আপনি অর্থনৈতিকভাবে সক্ষম হন তাহলে সয়ংসক্রিয় পায়ের ম্যাসেজ করার যন্ত্র কিনতে পারেন অথবা আপনি কমদামি পায়ের মেসেজের প্যাড কিনতে পারেন যার প্রভাব অতুলনীয়।

পায়ের পাতার আরো যত্ন নিন (Pay more attention to your feet)

এসবই ছিল ঘরোয়া পদ্ধতিতে পায়ের যত্ন নেওয়ার সাধারণ টোটকা। আপনার অবশ্যই এটা মনে রাখা উচিত যে সঠিক জুতোর ব্যবহার খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আঁটোসাঁটো ও বেঠিক মাপের জুতো পায়ের যন্ত্রনা বাড়িয়ে দেয় ও সে বিষয়ে আপনার নজর রাখা উচিত। আরামদায়ক জুতোর সোল পায়ের দাদ, হাজা, ছাল পরা  থেকে রক্ষা করে। এর পাশাপাশি আপনাকে সঠিক ব্যায়াম করা ও সঠিকভাবে চলাফেরার দিকে নজর রাখতে হবে।

loading...